মাতৃভান্ডারের রসমালাই ও রিয়েল ফুড

Roshmalai
Share This:

শুক্রবার সকালে বেলা করে ঘুম থেকে উঠে বউ বাচ্চার সাথে সময় কাটাচ্ছেন, এমন সময় ফোন, “স্যার আপনার একটা অর্ডার ছিল, মাতৃভান্ডারের রসমালাই নিয়ে আমি আপনার গেটে।” এরপর রসমালাই নামের সেই অমৃত একটার পর একটা গলাধঃকরণ পরিবারের সবাই মিলে। একটি ছুটির দিনের সকাল এরচেয়ে মধুর আর কিভাবে হতে পারে!

সকালটাকে মধুর করার পেছনের মানুষটা প্রিয় বড়ভাই Dehlobi Rezaul ভাই এবং তার উদ্যোগ ‘রিয়াল ফুড’। শুনেছি কুমিল্লায় মাতৃভান্ডার থেকে রসমালাই নিতে ১-২ ঘন্টা সময় ব্যয় করতে হয়, সেই জিনিস একদম দরজার গোড়ায়। ডেলিভারিও পেয়েছি খুবই দ্রুত। ভাইয়ের পোষ্ট দেখে রাত ১২টায় অর্ডার দিয়ে সকাল ১১টার মধ্যে ডেলিভারি। এতো সুপারফাষ্ট ডেলিভারি চালডাল ছাড়া পেয়েছি বলে মনে পড়ে না।

দেহলভি ভাই খুব আমুদে ও ঘোরাঘুরির মানুষ। ঘোরাঘুরিটাকেই নেশা থেকে পেশা বানিয়ে ফেললেন একটা ট্যুর অপারেটরস দিয়ে। সেখান থেকেই এখন কাজ করছেন বিভিন্ন জায়গার অথেনটিক ও ঐতিহ্যবাহী ফুড নিয়ে। কুমিল্লার রসমালাই, বগুড়ার দই, পাহাড়ের ফল, মোরগ- এরকম অনেক কিছু রয়েছে তার ভান্ডারে। আমার মাথায়ও ব্যবসার পোকাটা ঢুকেছিলো এরকম ঘোরাঘুরি থেকেই। বিভিন্ন জায়গায় যেতাম আর সেখানকার লোকাল, বিখ্যাত জিনিস দেখে ভাবতাম, ইস এই জিনিস যদি ঢাকায় নিয়ে বেচা যেত! ঠিক একাজটিই করছেন দেহলভি ভাই। ট্যুর অপারেটরের কারণে দেশব্যাপী রয়েছে তার বিস্তৃত নেটওয়ার্ক, এখন থেকে কোন জিনিস খেতে মন চাইলেই দেহলভি ভাইকে ফোন দিতে হবে, সাথে সাথে জিনিস হবে হাজির।

নেশাকে পেশা বানানোর সুযোগ খুব কম লোকই পেয়ে থাকে, দেহলভি ভাই তাদেরই একজন। আশা করি নেশা ও পেশার এই সংমিশ্রণে ভাই অনেক বড় কিছু করবেন। ভাইয়ের জন্য শুভকামনা।

Share This:

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *